মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রকল্প

ক্রমিক নং

প্রকল্পের নাম

প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বিবরণ

মন্তব্য/ছবি

১।

তিস্তা সেতু নির্মাণ

 

লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম বাসীর দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন তিস্তা সেতু বর্তমান জ়োটসরকারের আমলে বাস্তবায়িত হয়। রংপুর-কুড়িগ্রামমহাসড়কের ২১তম কিঃমিঃতে নির্মিত৭৫০ মি. দীর্ঘ এবং ১২.১০ মি. প্রস্থের তিস্তা সেতুর নির্মাণ ব্যয় ১২২ কোটি টাকা। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১২ তারিখ সেতুটি উদ্ভোধন করেন।

 

 

২।

ওয়াজেদ মিয়া সেতু নির্মাণ

 

সাদুল্লাপুর (মাদারগঞ্জ)- পীরগঞ্জ- নবাবগঞ্জ সড়কের ২৭তম কিলোমিটারে ৩০৩.৩২ মিটার দীর্ঘ এবং ১০.২৫ মিটার প্রস্থের ওয়াজেদ মিয়া সেতুর নির্মাণ কাজ বর্তমান জোট সরকারের সমাপ্ত হয়। সেতুটির সংশোধিত নির্মাণ ব্যয় ২২.১১ কোটি টাকা। সেতুটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক উদ্ভোধনের অপেক্ষায় রয়েছে।

 

 

৩।

সড়ক নেটওয়ার্ক উন্নয়ন ও রক্ষণাবেক্ষণ

 

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর অধীন সড়ক নেটওয়ার্ক উন্নয়ন ও রক্ষণাবেক্ষণ প্রকল্পের আওতায় রংপুর জোন, রংপুর আওতাধীন অনেক সড়কের ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। বোদা-দেবীগঞ্জ-ডোমার-নীলফামারী; পার্বতীপুর- ফুলবাড়ী; ফুলবাড়ী-মধ্যপাড়া সড়কসমূহে ১৯৮ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রায় ৫৫ কিঃমিঃ এবং ১৮৫ কোটি টাকা ব্যয়ে পঞ্চগড়-তেতুলিয়া-বাংলাবান্ধা সড়কের ৫৩.১০ কিঃমিঃ ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়। এর অন্য একটি প্রকল্পে মিঠাপুকুর-মধ্যপাড়া; পার্বতীপুর-সৈয়দপুর; ঠাকুরগাঁও-বালিয়াডাংগী-রানী শংকৈল সড়কে ১২২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮০ কিঃমিঃ রাস্তার উন্নয়ন করা হয়।

 

৪।

যমুনেশ্বরী সেতু নির্মাণ

 

রংপুর-বদরগঞ্জ-পার্বতীপুর সড়কে ২১তম কিঃমিঃ এ যমুনেশ্বরী সেতুর সুপার স্ট্রাকচার এই জোট সরকারের আমলে নির্মাণ করা হয়। ১২৬ মিটার দৈর্ঘ্যের এ সেতু নির্মাণে ব্যয় হয় ৪.৫০ টাকা। এর ফলে পার্বতীপুর উপজেলা এবং বদরগঞ্জ উপজেলার সাথে বিভাগীয় সদর রংপুরের সরাসরি যোগাযোগ স্থাপিত হয়।

 

 

৫।

লাঙ্গলেরহাট সেতু নির্মাণ

 

রংপুরের গংগাচড়া উপজেলায় ৯৩.০২ মি. দীর্ঘ লাঙ্গলেরহাট সেতুর নির্মাণ ব্যয় ৬.৫০ কোটি টাকা। এছাড়া একই উপজেলায় কুড়া নদীর উপর ১৫.২৫ মি. সেতু নির্মাণ করা হয়। পঞ্চগড় জেলার টাকাহারা সেতু এবং পাম সেতু বর্তমান সরকারের সময়ে নির্মিত হয়।